November 29, 2021, 3:50 am

কাজিপুরে বন্যার পানিতে ২০ হাজার কৃষকের ২ হাজার হেক্টর জমির রোপা আমন তলিয়ে গেছে

সংবাদদাতার নাম:
  • প্রকাশিত: সোমবার, আগস্ট ৩০, ২০২১
  • 77 দেখা হয়েছে:

 

কাজিপুর প্রতিনিধি : অতিবৃষ্টি ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে সিরাজগঞ্জের কাজিপুরে যমুনা নদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় পানি বেড়ে কাজিপুরের মেঘাই পয়েন্টে বিপদ সীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। সিরাজগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ড এ তথ্য নিশ্চিত করেছে। এতে করে প্রায় দুই হাজার হেক্টর জমির আমন ধান পানিতে তলিয়ে গেছে।

পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় এরই মধ্যে চরাঞ্চলের নাটুয়ারপাড়া, মনসুরনগর, চরগিরিশ, নিশ্চিন্তপুর, খাসরাজবাড়ী ও তেকানীসহ গান্ধাইল, শুভগাছা ও মাইজবাড়ি ইউনিয়নের কিছু অংশের রোপা আমনের ক্ষেতে বন্যার পানি ঢুকে পড়েছে। এতে করে স্থানীয় কৃষকদের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে। দ্রুত এই পানি নেমে না গেলে সমূহ ক্ষতির মুখে পড়বেন কৃষকেরা। গত কয়েক বছর বন্যার কারণে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকেরা এবার আশায় বুক বেঁধেছিলেন। ইতোমধ্যে আমন ধানের রোপিত চারা অনেকটাই সবুজ হয়ে উঠেছিল।

মনসুর নগর ইউনিয়নের কৃষক খোকা মিয়া জানান, গতবারও বন্যার কারণে ভালো ফলন পাইনি। এবারও জমিতে পানি ঢুকেছে। আল্লাই জানে কি হবে। মাইজবাড়ির কৃষক আক্তার বলেন, চড়া দামে শ্রমিক নিয়ে ধানের চারা রোপণ করেছিলাম। গাছ বেশ সবুজ হয়েছে। প্রথমবারের সারও ছিটিয়েছি। কিন্তু কয়েকদিন হলো ধান পানিতে ডুবে গেছে। দ্রুত পানি না কমলে অনেক ক্ষতি হবে।

কাজিপুর উপজেল কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, রবিবার দুপুর পর্যন্ত চরাঞ্চলের ছয়টি ইউনিয়ন সহ গান্ধাইল ও মাইজবাড়ির আংশিক ফসলি জমিতে পানি ঢুকেছে। এতে প্রায় ২০ হাজার কৃষকের মোট ১৮ শ ৭৭ হেক্টর রোপা আমনের ফসল নিমজ্জিত হয়েছে।

কাজিপুর উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ রেজাউল করিম জানান, দ্রুত এই পানি নেমে গেলে কৃষকের তেমন কোন ক্ষতি হবে না। যদি দীর্ঘকাল ব্যাপী পানি থাকে তবে এবারও ক্ষতির সম্মুখীন হবেন চরাঞ্চলের রোপা আমন চাষীরা।

কাজিপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাহিদ হাসান সিদ্দিকী জানান, বানভাসিদের নিয়মিত খোঁজখবর রাখছি। আমরা সার্বক্ষণিক তাদের পাশে আছি। #

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরো সংবাদ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। © All rights reserved © 2020 ABCBanglaNews24
Theme By bogranewslive
themesba-lates1749691102