November 29, 2021, 5:51 am

ডোমারের প্রধান সড়কটি নির্মানে ব্যপক অনিয়মের অভিযোগ

সংবাদদাতার নাম:
  • প্রকাশিত: রবিবার, জুলাই ১৯, ২০২০
  • 49 দেখা হয়েছে:

(ইয়াছিন মোহাম্মদ সিথুন; ডোমার, নীলফামারী) :

নীলফামারীর ডোমার বাসস্ট্যান্ড হতে থানার গেট পর্যন্ত এক হাজার মিটার সড়কের কাজের ব্যপক অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। নিম্নমানের রড, ঢালাই শেষে পানি দিয়ে ভিজিয়ে না রাখা, কাজের বিবরণের সাইনবোর্ড না টাঙানো, সড়ক ও জনপথ বিভাগের প্রোকৌশলীর অনুপস্থিতিতে ঢালাইসহ বিভিন্ন নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহারের অভিযোগ করেছে অনেকে।
রোববার দুপুরে ডোমার বাজারে সড়কে পাশের মোবাইল টেলিকম ব্যবসায়ী মোঃ সাজেদুল ইসলাম সাজু জানান, বাসস্ট্যান্ডের ওই দিকে কাজের মান ভালো ছিল। কিন্তু রেলঘুন্টি হতে থানা পর্যন্ত কাজের মান খুবেই খারাপ। এখানে দুই রকল রড ব্যবহার হচ্ছে।
ছাত্রলীগ নেতা শুভ ভৌমিক জানান, রাস্তার ঢালাইয়ের সময় আমি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের লোকদের জিজ্ঞাসা করি সড়ক ও জনপথ বিভাগের কোন প্রোকৌশলী উপস্থিত আছে কি? তারা আমাকে জানায়, গতকাল সকালে ছিল। আর আসে নাই। কতৃপক্ষের কোন প্রোকৌশলী উপস্থিত না থাকেলে, কাজের মান নিয়ে যতেষ্ঠ সন্দেহ থাকে তিনি জানান।
উপজেলা জাতীয় পার্টির আহ্বায়ক আসাদুজ্জামান চয়ন জানান, ডোমারের ইতিহাসে সবচেয়ে নিম্নমানের কাজ হচ্ছে প্রধান সড়কটির। কিছু প্রভাবশালীর শেল্টারে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান নিজের খেয়াল-খুশিমতো কাজ করছে। প্রভাবশালীরা কেউ বালু, কেউ ইট, আবার কেউ রড সরবরাহ করছে। আর তারা ঠিকারদারকে কাজের অনিয়মের সহায়তা করছে। তিনি আরো বলেন, এখানে কাজের বিবরন দেওয়া কোন সাইনবোর্ড নাই। আমরা জানতেও পারছি না, কে ঠিকাদার। আর কাজটির জন্য সরকার কত টাকা বরাদ্ধ দিয়েছে।
সেচপাম্প মালিক সমিতির সভাপতি গোলাম কুদ্দুস আইয়ুব জানান, ঢালাইয়ের পর ২১ দিন পানি দিয়ে কিউরিং করার নিয়ম রয়েছে। কিন্তু কৃষি ব্যাংক হতে থানার গেট পর্যন্ত কোন কিউরিং করা হচ্ছে না।
নুরুজ্জামন বাবলা নামে এক ব্যক্তি জানান, ধীরগতিতে প্রধান সড়কটির কাজ করায় ডোমারের প্রায় ছয়টি সড়কের বেহাল দশা হয়েছে।
অনেকে রাতের বেলায়ও নিম্নমানের কাজ করার অভিযোগ করেছে।
ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রোকৌশলী নাহিদ শিকদার জানান, এখানে সকল নিয়ম মেনে কাজ করা হচ্ছে। এ সড়কের কাজে আমাদের অনেক লোকসান হবে।
সড়ক ও জনপথ বিভাগের দায়িপ্তপ্রাপ্ত প্রোকৌশলী তন্ময় চক্রবর্তী জানান, ওই সড়কটির কাজ খুব ভালো হচ্ছে। অনেকে ভুয়া অভিযোগ করছে। জেলায় অনেক কাজ চলছে। তাই প্রোকৌশলীরা সবসময় উপস্থিথ থাকতে পারে না।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরো সংবাদ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। © All rights reserved © 2020 ABCBanglaNews24
Theme By bogranewslive
themesba-lates1749691102