October 23, 2021, 11:59 am
তাঁজাখবর
সাংবাদিক নাসির উদ্দীন বালীর মৃত্যুতে শোক সভা ও দোয়া মোনাজাত অনুষ্ঠিত প্রয়াণ দিবসে কবি জীবনানন্দ দাশকে নিয়ে বগুড়ায় আলোচনা চৌহালীতে খাষপুকুরিয়ার ইউপি নির্বাচনে নৌকা’র প্রতীক প্রত্যাশী মাসুম সিকদার আদমদীঘিতে রক্তদহ বিলে অভিযানঃ ২ হাজার মিটার ভাদাই জাল জব্দ সান্তাহারে ট্রেন থেকে চোলাই মদসহ গ্রেপ্তার ১ কাজিপুরে আওয়ামীলীগের উদ্যোগে জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ মিছিল দক্ষিণ বঙ্গের রাজনৈতিক অভিভাবক আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ’র হাত ধরে দুর্বার গতিতে এগিয়ে যাচ্ছেন উজিরপুর উপজেলা চেয়ারম্যান নন্দীগ্রামে পুলিশের অভিযানে গ্রেপ্তার-৬ বাগমারায় দখলীয় নির্মাণাধীন ঘর জামাল ক্যাডার বাহিনী দ্বারা বিধ্বস্ত শাজাহানপুরে ইউপি নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন পেলেন যারা

পন্য সেজে ট্রাকে করে কর্মস্থলে ফিরছে মানুষ

সংবাদদাতার নাম:
  • প্রকাশিত: মঙ্গলবার, মে ১৮, ২০২১
  • 31 দেখা হয়েছে:

ঈদের ছুটি শেষে ভোগান্তি নিয়েই পন্য সেজে ট্রাকে করে কর্মস্থলে ফিরছে মানুষ । গণপরিবহন বন্ধ থাকায় ট্রাক-মিনি ট্রাকই একমাত্র ভরসা ঢাকামুখী নিম্ন-মধ্যবিত্ত মানুষের। সরেজমিনে বগুড়ার শেরপুরের ধুনটমোড় এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, ট্রাকের ভিতর গাদাগাদি করে রোদ-বৃষ্টি মাথায় নিয়েই যেতে যাচ্ছে কর্মস্থল ঢাকায়। আবার উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জেলা থেকে পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে বাসে চড়ে রওয়ানা হচ্ছে। বিভিন্ন চেকপোষ্টে বাস থমিয়ে যাত্রি নামিয়ে দেওয়া হচ্ছে। ফলে এসব যাত্রী আরও বিপাকে পড়ছে। ধুনটমোড়ে যাত্রিরা ঘণ্টার পর ঘণ্টা দাঁড়িয়ে থেকে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ট্রাকে করে ঢাকায় যাচ্ছে।
একদিকে ভোগান্তি অন্যদিকে বাড়তি টাকা গুণতেও হচ্ছে তাদের। যাত্রীরা বলছে, চাকরি বাঁচাতে যেকোন উপায়ে তাদের ঢাকায় যেতেই হবে। যাত্রীবাহী বাস বন্ধ থাকলেও ট্রাক-মিনিট্রাক ও প্রাইভেট কার ও মাইক্রো বাসের চাপ রয়েছে ব্যাপক।
যাত্রী আলগর আলী জানান, গণপরিবহন বন্ধ। কিন্তু চাকরি বাঁচাতে ঢাকা যেতেই হবে। বাধ্য হয়ে ভেঙে ভেঙে যাচ্ছি। এতে যেমন ভোগান্তি হচ্ছে তেমনি দ্বিগুণ টাকাও গুনতে হচ্ছে। যাত্র আকলিমা খাতুন জানান, গার্মেন্টস খুলবে। সময়তো না গেলে চাকরি থাকবে না। তাই ছোট ছোট ছেলে- মেয়েকে নিয়ে ট্রাকে করে যেতে হচ্ছে।
সোনামুখী হতে আসা ধুটমোড় থেকে ঢাকায় যাওয়ার জন্য ট্রাকে উঠা যাত্রি——– জানান, এখন মহাবিপদে পড়ে গেছি। তিন ঘণ্টা দাঁড়িয়ে থাকার পর ট্রাকে ওঠে রওয়ানা হচ্ছি। জীবনের ঝুঁকি নিয়েই যেতে হচ্ছে। করোনার কারণে বাস বন্ধ রেখেছে। কিন্তু ট্রাকে যেভাবে গাদাগাদি করে যেতে হচ্ছে তাতে বাস চালু থাকলেও ভালো হতো। স্বাস্থ্যবিধি মেনে যাওয়া যেতো। ট্রাকে তো স্বাস্থ্যবিধির কোন বালাই নেই।
শেরপুর হাইওয়ে পুলিশ ফাড়ির ইনচার্জ এ কে এম বানিউল আনাম জানান, বাস আমরা চেকপোষ্টে থামিয়ে দিচ্ছি চলাচল করতে দেওয়া হচ্ছেনা। যাত্রীদের নামিয়ে বাসের বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে ফেরত পাঠানো হচ্ছে। কিন্তু ট্রাকে হাজার হাজার মানুষ পার হয়ে যাচ্ছে। মানবিক কারণে এসব রোধ করা সম্ভব হচ্ছে না।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরো সংবাদ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। © All rights reserved © 2020 ABCBanglaNews24
Theme By bogranewslive
themesba-lates1749691102