May 21, 2022, 8:19 am
তাঁজাখবর
শাজাহানপুরে সারা মনি’র জন্মদিনে দোয়া দেশের মানুষের মুক্তির জন্য খালেদা জিয়ার মুক্তির বিকল্প নেই -আজাদ সাংবাদিক ও প্রভাষক নাহিদ আল মালেকের এলএলবি ডিগ্রি লাভ বগুড়ায় বিভাগীয় সাংস্কৃতিক দক্ষতা ও প্রশিক্ষন কর্মশালা সম্পন্ন শাজাহানপুরে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্টের উদ্বোধন শাজাহানপুরে সৎ বাবার সঙ্গে মায়ের তালাকের কারণে শিশু সামিউলকে হত্যা বগুড়ায় প্রবাসীর স্ত্রীর সাথে আপওিকর ভিডিও থানায় অভিযোগ শাজাহানপুরে ফসলি জমি থেকে উদ্ধার হওয়া শিশুর লাশের সন্ধান লাভ  শাজাহানপুরের আড়িয়ায় ফসলের ক্ষেত থেকে শিশুর লাশ উদ্ধার  বিদেশ নয়,এখন বগুড়ার শেরপুরে তৈরি হচ্ছে বিদেশী কৃষি যন্ত্র

বন্যায় পচে গেল লাখ টাকার বাদাম

সংবাদদাতার নাম:
  • প্রকাশিত: শনিবার, জুলাই ২৫, ২০২০
  • 91 দেখা হয়েছে:

কাউনিয়া (রংপুর) প্রতিনিধি 

রংপুরের কাউনিয়ায় ভারী বর্ষণ ও উজানের ঢলে চরাঞ্চলের ২শ’ বিঘা জমির বাদাম গাছ পানিতে তলিয়ে গেছে। এতে পচে গেছে কয়েক লাখ টাকার বাদাম। এ পরিস্থিতিতে বাদাম চাষিদের কপালে দুশ্চিন্তার ভাঁজ পড়েছে।

সরেজমিনে দেখা গেছে, এখন তলিয়ে যাওয়া গাছ থেকে ভালো বাদামগুলো তুলে লোকসান কিছুটা কমানোর চেষ্টা করছেন চাষিরা। তবে এসব বাদাম তুলে শুকানোর পর কালো হয়ে যায়। সামান্য পরিমাণ বাদাম ভালো থাকে।

কৃষি বিভাগ জানায়, নদীর তীরবর্তী চরাঞ্চল নাজিরদহ, পল্লীমারী, একতা, ঢুষমারাসহ ২০টি গ্রামে বারি, বিনা ও স্থানীয় কয়েকটি জাতের ৬২৫ হেক্টর জমিতে বাদাম চাষ হয়েছে। খরচ কম ও ভালো ফলন হওয়ায় বছরে দুইবার বাদাম চাষ হয়। কিন্তু এ বছর আগাম বৃষ্টিপাত ও দুই দফা উজানের ঢলে ২শ’ বিঘা জমির বাদাম গাছ তলিয়ে গেছে।

এবার চরনাজিরদহ ও চরঠিকানারহাটে ২শ’ বিঘা জমিতে বাদাম চাষ করেছেন বেইলি ব্রিজ গ্রামের সিরাজুল ইসলাম। প্রতি বিঘায় ১২-১৪ হাজার টাকা খরচ হয়েছে।

তিনি জানান, প্রথম দফা বন্যার আগ মুহূর্তে ১২০ বিঘা জমির বাদাম তুলছেন। কিন্তু দ্বিতীয় দফায় ভারী বর্ষণ ও বন্যায় তিস্তা নদীর পানিতে ৮০ বিঘা জমির বাদাম গাছ পচে গেছে। শুকনো ও পরিপক্ক বাদাম তুলতে না পারায় তার লাখ টাকা লোকসান হয়েছে।

পল্লীমারী গ্রামের আমজাদ হোসেন ও হামিদুর জানান, মাত্র তিন মাসে সামান্য পরিচর্যায় বিঘাপ্রতি ১২-১৫ হাজার টাকা খরচে বাদামের ভালো ফলন পাওয়া যায়। প্রতি বিঘায় ৬-৭ মণ বাদাম হয়। বাজারে প্রতিমণ বাদাম ৩০০০-৩৫০০ টাকায় বিক্রি হয়। কিন্তু এবার ভারী বর্ষণ ও দুই দফা বন্যায় চরাঞ্চলের অনেক জমি তলিয়ে গেছে। লাভের পরিবর্তে বড় ধরনের লোকসানের মুখে পড়েছে বাদাম চাষিরা।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম জানান, বাদাম লাভজনক ফসল। তিস্তার চরাঞ্চলে পলি ও বালু মাটিতে বাদামের ফলন ভালো হয়। কিন্তু এবার টানা বৃষ্টিপাত ও দুই দফা বন্যায় বাদাম চাষিদের অনেক বড় লোকসান হয়েছে। কয়েকদিন আগে বাদাম তুলতে পারলে ভালো দামে বিক্রি হতো।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরো সংবাদ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। © All rights reserved © 2020 ABCBanglaNews24
Theme By bogranewslive
themesba-lates1749691102