December 1, 2021, 8:21 pm

বাগমারায় দখলীয় নির্মাণাধীন ঘর জামাল ক্যাডার বাহিনী দ্বারা বিধ্বস্ত

সংবাদদাতার নাম:
  • প্রকাশিত: শুক্রবার, অক্টোবর ২২, ২০২১
  • 52 দেখা হয়েছে:

 

রাজশাহী প্রতিনিধি:

রাজশাহীর বাগমারা উপজেলাধীন সোনাডাঙ্গা ইউনয়নের শিমলা বাজারে সন্ত্রাসী ক্যাডার বাহিনী দ্বারা নির্মাণাধীন ঘর ও প্রাচীর বিধ্বস্ত করা হয়েছে। ঘটনাটি ২১শে অক্টোবর ভোররাত্রে সন্ত্রাসীরা সংঘবদ্ধ হয়ে নির্মাণাধীন ঘরে হামলা চালায়।

স্থানীয়রা জানান, গত বুধবার আনুমানিক রাত্রি ৮:০০ ঘটিকার সময় শিমলা বাজারে হাসুয়া, বাঁশের লাঠি, লোহার রোড সহ দেশীয় অস্ত্রসজ্জে সজ্জিত হয়ে জামাল, কায়েম সহ স্থানীয় ও পার্শ্ববর্তী মান্দা উপজেলা থেকে ভাড়া করে আনা সন্ত্রাসী ক্যাডার বাহিনী নিয়ে দাফট দেখিয়ে সংঘবদ্ধভাবে চলাফেরা শুরু করে। নাশকতার ভয়ে স্থানীয়রা জিজ্ঞাসা করলে শিক্ষক সাজ্জাদ হোসেনের নির্মাণাধীন ঘর ও প্রাচীর ভাংচুর করবে বলে হুমকি দিয়ে ঘটনাস্থল ঘেরাও করার পায়তারা শুরু করে। সেখানকার ০৬ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য শ্যামল চন্দ্র সাক্ষাৎকারে জানান, বুধবার রাত্রি ১০:০০ ঘটিকার সময় শিমলা বাজারে আসতেই কায়মের ছেলে সাদেকুল ইসলাম হাতে লাঠি নিয়ে মারমুখি হয়ে সামনে এসে আঘাত করার চেষ্ঠা করে। কারন জানতে চাইলে সাদেকুল ফোন কল না ধরার অজুহাত দেখান। কথাকাটির এক পর্যায়ে ইউপি সদস্য ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন। পরে হাটগাঙ্গোপাড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ মো: রফিকুল ইসলাম সহ সঙ্গিয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

শিক্ষক সাজ্জাদ হোসেন জানান, ১৯৮৪ সাল হতে অদ্যবধি পর্যন্ত ক্রয়সূত্রে মালিক হয়ে আমরা সরকারিভাবে খাজনা খারিজ দিয়ে বৈধতার সহিত প্রায় ৩৬ বছর যাবৎ জায়গাটি ভোগদখল করে আসছি। এতদিন পর জামাল ও কায়ম হোসেন কিছু বহিরাগত ভাড়া করা ক্যাডার বাহিনী সাথে নিয়ে জায়গা থেকে আমাদের উচ্ছেদ করতেই হামলা চালিয়েছে। এদিকে পার্শ্ববর্তী ডাচ বাংলা অফিস ঘরে ঐ সময় আমার ছোট ভাই খালেদ বন্ধি অবস্থায় ছিল, প্রানের ভয়ে ঘর থেকে বাহির হতে পারেনি।

ঘটনার পেছনের ঘটনা হতে জানা যায়, উক্ত বিবাদমান সম্পত্তি নিয়ে পূর্বেই সমাধান লক্ষে বাগমারা থানায় উভয় পক্ষের অভিযোগ সাপেক্ষে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে মিমাংসা লক্ষে সোনাডাঙ্গা ইউপি চেয়ারম্যান কর্তৃক বিষয়টি হস্থান্তর করা হয়। সাজ্জাদ হোসেনের পরিবার সালিশ বৈঠকে হাজির হলেও জামালগন হাজির হয়না। এক পর্যায়ে দুই পক্ষ মামলা করে আদালতে।

জামাল এর পরিবার সূত্রে, বুধবার রাতে শিমলা বাজারে বিবাদমান জায়গার উপর ঘর নির্মাণ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে সাজ্জাদ হোসেনের লোকজন আমার লোকের উপর এলোপাতাড়ি মারধর শুরু করে যা রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। ভাংচুর ঘটনাকে তিনি অস্বিকার করেছেন।

এবিষয়ে যোগাযোগ করা হলে বাগমারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) মোস্তাক আহম্মেদ জানান, পূর্বেই উক্ত জমিজমার বিষয়টি তদন্ত করে দেখেছি। গতকাল রাতে ৯৯৯ এর মাধ্যমে বিষয়টি জানতে পেরে সাথে সাথে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থলে থাকা অবস্থায় কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। নির্মানাধীন ঘর ভাংচুর বিষয়ে দোষিদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরো সংবাদ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। © All rights reserved © 2020 ABCBanglaNews24
Theme By bogranewslive
themesba-lates1749691102