November 29, 2021, 6:28 am

শেরপুরের “স্বপ্নঁছোয়াঁর সিঁড়ি” মডেলের কার্যক্রম পরিদর্শনে অতিরিক্ত সচিব

সংবাদদাতার নাম:
  • প্রকাশিত: সোমবার, মার্চ ১, ২০২১
  • 68 দেখা হয়েছে:

এস, আই বাবলু

বগুড়ার শেরপুরে গড়ে উঠেছে অ্যান্টিবায়োটিক ও স্টেরয়েড (হরমোন) ধরনের ওষুধ ব্যবহারমুক্ত দেশী মুরগী পালনে প্রশিক্ষণ পাঠশালা ‘স্বপ্ন ছোঁয়ার সিঁড়ি’। উপজেলা শহরের টাউন কলোনি এবং গাড়িদহ ইউনিয়নের চকপাথালিয়া গ্রামে গড়ে তোলা হয়েছে এই পাঠশালা। সপ্তাহে শুক্র ও শনিবার সারা দেশ থেকে আসা উদ্যোক্তাদের নিয়ে চলে প্রশিক্ষণ কার্যক্রম। এ পাঠশালায় অ্যান্টিবায়োটিক ও স্টেরয়ড ব্যবহার না করেই দ্রুত সময়ে দেশি মুরগির অধিক মাংস ও ডিম উৎপাদন, বাণিজ্যিক খামার গড়া ও বাজারজাতকরণের নানা কৌশল শেখানো হয় হাতে কলমে।

‘স্বপ্ন ছোঁয়ার সিঁড়ি’ পাঠশালার উদ্ভাবক শেরপুর উপজেলা প্রাণিসম্পদ দপ্তরের ভেটেরিনারি সার্জন ডা.মো.রায়হান পিএএ ।

ডা. মো. রায়হান ২০১৫ সালে ভোলার মনপুরা উপজেলা থেকে বদলী হয়ে বগুড়ার শেরপুর উপজেলা প্রাণিসম্পদ দপ্তরে যোগদান করেন। এ উপজেলায় এসে জানতে পারেন স্থানীয় আমজাদ হোসেন, আবদুল কাদের ও এনামুল হক তাঁদের বাড়িতে সনাতন পদ্ধতিতে ৫০-৬০টি করে দেশি মুরগি পালেন। তিনজনকে নিজ অফিসে ডেকে আধুনিক পদ্ধতিতে বাণিজ্যিকভাবে দেশি মুরগির খামার করার কথা বলেন, তাদের সায় থাকায় প্রশিক্ষণ দানের ব্যবস্থা। অল্প দিনেই সফল হন তাঁরা। তাঁদের সফলতার কথা ছড়িয়ে পড়ে গোটা উপজেলায়। শেরপুর উপজেলা প্রাণিসম্পদ কার্যালয়ে উদ্যোক্তাদের নজরেে আসে।

ইতিমধ্যে এ পাঠশালায় প্রশিক্ষণ নিয়ে বগুড়ার শেরপুর উপজেলাতেই গড়ে উঠেছে ১ হাজার দুশোর অধিক খামার। এ পাঠশালায় প্রশিক্ষণ নিয়ে বগুড়ার শেরপুর উপজেলার ধড়মোকাম গ্রামের জাকারিয়া ইসলাম (২২) ইতিমধ্যে একজন সফল খামারির খেতাবও পেয়েছেন।

দেশজুড়ে শিক্ষিত বেকারদের মাঝে এ উদ্যোগ পাঠশালার কর্মকান্ড ছড়িয়ে পড়ে। পাঠশালাটির প্রতি আগ্রহ বাড়ায় চট্টগ্রামের বোয়ালখালি থেকে ইনাম ইলাহী চৌধুরী, যশোরের অভয় নগরের হোসনে আরা, আবিদ হাসান, কুমিল্লার দেবিদ্বারের আকরাম হোসেন, রংপুরের পীরগাছা উপজেলার আসিফ, টাংগাইলের মধুপুর ভুয়াপুরের ফরিদ, সাবির দেওয়ানসহ তাদের মত দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে প্রশিক্ষণ নিতে আসছে বহু শিক্ষিত বেকারেরা।

অন্যদিকে, ডাঃ মো: মো. রায়হান পিএএ’র উদ্যোগে অভিভূত হয়ে ‘স্বপ্ন ছোঁয়ার সিঁড়ি’ নামের উদ্যোক্তা পাঠশালাটি সারা দেশে ছড়িয়ে দিতে ২০টি উপজেলায় পাইলট প্রকল্প গ্রহণের সুপারিশ করে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়কে ইতিমধ্যে চিঠি দিয়েছে সরকারের মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ (সমন্বয় ও সংস্কার)।

এরই ধারাবাহিকতায় (২৮ ফেব্রুয়ারী) দুপুর ২টায় গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের ইনোভেশন/প্রকল্প মুল্যায়ন/পরিকল্পনা টিমের সভাপতি ও অতিরিক্ত সচিব মো.তৌফিকুল আরিফ এক সরকারী সফরে ’স্বপ্ন ছোঁয়ার সিঁড়ি’ মডেলের বিভিন্ন কার্যক্রম ও উদ্যোক্তা পাঠশালা সরেজমিন পরিদর্শন করেন এবং দেশের জন্য ইনোভেটিভ কার্যক্রমের ইতিবাচক ভুয়সী প্রশংসা করে অতিরিক্ত সচিব বলেন নিরাপদ প্রাণিজ উৎপাদনে এবং টেকসই কর্মসংস্থান, নারীর ক্ষমতায়নে এবং গ্রামীণ অর্থনীতি সমৃদ্ধ করতে স্বপ্ন ছোঁয়ার সিঁড়ি মডেল ও উদ্যোক্তা পাঠশালা দেশব্যাপী জাতীয়ভাবে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করছে।

উদ্যোক্তাদের সাথে মত বিনিময়কালে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ মোহাঃ রফিকুল ইসলাম তালুকদার, এলডিডিপি প্রকল্পের ডেপুটি ডিরেক্টর ডা.মোস্তানুর রহমান, বগুড়া জেলা মৎস্য কর্মকর্তা আনোয়ারুল কবির, মৎস্য অধিদপ্তরের সিনিয়র এসিস্ট্যান্ট ডিরেক্টর মো.মহসিন, জেলা কৃত্রিম প্রজনন কেন্দ্র বগুড়ার উপ-পরিচালক ডাঃ মোঃ সাজেদুল ইসলাম, শেরপুর উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ আমির হামজা, প্রাণিসম্পদ সম্প্রসারণ কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ গাউসুর রহমান আলাল, কৃষিবিদ সানজিদা হক, ভেট’স সোসাইটি অব বগুড়ার সাধারণ সম্পাদক মোঃ তাওহীদুল ইসলাম সুমন, পুসাসের সাধারণ সম্পাদক মোঃ শওকত শামীমসহ গনমাধ্যম ব্যাক্তিবর্গ।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরো সংবাদ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। © All rights reserved © 2020 ABCBanglaNews24
Theme By bogranewslive
themesba-lates1749691102