October 26, 2021, 6:39 am
তাঁজাখবর
যমুনার পাড়ে দাড়িয়ে থাকা যে দশজন নৌকায় উঠতে পারলেন বাগমারায় উন্নয়নের ধারা অব্যহত রাখতে চায় আল- মামুন বাগমারায় এক গৃহবধূ নির্যাতনের শিকার বগুড়া সদরের লাহিড়ীপাড়ায় নিহত সিএনজি চালক জাহেরের দাফন শেষে সিএনজি চালকদের মানববন্ধন সাংবাদিক নাসির উদ্দীন বালীর মৃত্যুতে শোক সভা ও দোয়া মোনাজাত অনুষ্ঠিত প্রয়াণ দিবসে কবি জীবনানন্দ দাশকে নিয়ে বগুড়ায় আলোচনা চৌহালীতে খাষপুকুরিয়ার ইউপি নির্বাচনে নৌকা’র প্রতীক প্রত্যাশী মাসুম সিকদার আদমদীঘিতে রক্তদহ বিলে অভিযানঃ ২ হাজার মিটার ভাদাই জাল জব্দ সান্তাহারে ট্রেন থেকে চোলাই মদসহ গ্রেপ্তার ১ কাজিপুরে আওয়ামীলীগের উদ্যোগে জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ মিছিল

হাটে থৈ থৈ পানি, ইজারাদার-খামারির কপালে ভাঁজ

সংবাদদাতার নাম:
  • প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, জুলাই ২৩, ২০২০
  • 46 দেখা হয়েছে:

ইউনুছ আলী আনন্দ, কুড়িগ্রাম

কদিন পরই ঈদুল আজহা। ঈদের নামাজ শেষে বাড়ি বাড়ি শুরু হয় কোরবানি। এ কারণে কোরবানির পশু কেনার কাজটুকু আগেভাগেই সারতে হয়। কিন্তু কুড়িগ্রামের রৌমারীতে এবারের কোরবানির হাটের দৃশ্য সম্পূর্ণ অচেনা। একে তো করোনা পরিস্থিতি, তার ওপর বন্যা। পানিতে থৈ থৈ করছে উপজেলার সবগুলো পশুর হাট।

এমন পরিস্থিতিতে বিপাকে পড়েছেন রৌমারীর  খামারি ও পশুর হাটের ইজারাদাররা। প্রথম দফার ক্ষতি পুষিয়ে নেয়ার আগেই দ্বিতীয় দফায় আঘাত হাতে বন্যা। এতে হাট ইজারা নিয়ে লোকসান গুণছেন ইজারাদাররা। প্রতি সপ্তাহে তাদের ক্ষতি হচ্ছে প্রায় তিন লাখ টাকা। একইসঙ্গে পশু বিক্রি নিয়ে দুশ্চিতায় পড়েছেন খামারিরা।

জামালপুর থেকে আসা গরুর ব্যাপারী হযরত আলী বলেন, রৌমারী হাট থেকে গরু কিনে জামালপুরসহ বিভিন্ন জেলায় বিক্রি করি। যা লাভ হয় তা দিয়েই আমার সংসার চলে। কিন্তু এবার বন্যায় পশুর হাট ডুবে গেছে। আমার ব্যবসাও প্রায় বন্ধ।

বকশীগঞ্জ থেকে রৌমারী সদরের হাটে গরু কিনতে এসেছেন জামাল উদ্দিন। তিনি বলেন, এখানকার পশুর হাটে পানি ওঠায় হাট জমছে না। ব্যবসা না হলে পরিবার নিয়ে বিপদে পড়তে হবে।

চরবন্দবেড় গ্রামের খামারি ওসমান আলী বলেন, এবারের কোরবানিতে আমার কয়েকটি গরু বিক্রির জন্য প্রস্তুত করেছি। কিন্তু পানি জমে থাকায় গরুগুলো হাটে নিয়েও বিক্রি করতে পারিনি।

রৌমারী সদর পশুর হাটের ইজারাদার রাজু আহমেদ খোকা বলেন, করোনাভাইরাসের কারণে ৪৬ দিন হাট-বাজারসহ সবকিছু সরকারি নির্দেশে বন্ধ ছিল। এতে আমাদের অনেক লোকসান হয়েছে। এবার কোরবানির হাটের ইজারা নিয়ে সেই ক্ষতি কিছুটা পুষিয়ে নিতে চেয়েছিলাম। কিন্তু বন্যায় আমাদের সে আশাও শেষ। এবার পশুর হাট ইজারা নিয়ে আমার ও শেয়ার হোল্ডারদের ৩৬ লাখ টাকা ক্ষতি হয়েছে।

রৌমারীর ইউএনও আল-ইমরান বলেন, ইজারাদারদের লোকসানের বিষয়টি কুড়িগ্রাম ডিসির মাধ্যমে আমি স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে লিখিত দিয়েছি। পূর্ণাঙ্গ নির্দেশ না আসা পর্যন্ত পূর্বের নীতিমালায় এখানকার সব হাট-বাজার চলবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরো সংবাদ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। © All rights reserved © 2020 ABCBanglaNews24
Theme By bogranewslive
themesba-lates1749691102