October 28, 2021, 7:56 am
তাঁজাখবর
বগুড়ায় একাধিক শিশুকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে মুদি দোকানী গ্রেফতার উজিরপুরে কালিহাতায় ঐতিহ্যবাহী সিকদার বাড়িতে ইউপি সদস‍্য প্রার্থী সালামের উঠান বৈঠক চৌহালীতে নবাগত উপজেলা শিক্ষা অফিসারের যোগদান গোমস্তাপুরে বিভিন্ন সম্প্রদায়ের মাঝে সম্প্রীতির বন্ধন অটুট রাখার লক্ষ্যে সম্প্রীতি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে উজিরপুরে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে মনোনীত প্রার্থীদের শুভেচ্ছা জানাতে বিমান বন্দরে নেতাকর্মীদের ঢল শাজাহানপুরে উপজেলা ছাত্রদলের আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত মডেল মেডিসিন শপ স্থাপন বিষয়ে সাড়া জাগিয়েছে অনলাইন ভিত্তিক জুম পুশিক্ষন কার্যক্রম যমুনার পাড়ে দাড়িয়ে থাকা যে দশজন নৌকায় উঠতে পারলেন বাগমারায় উন্নয়নের ধারা অব্যহত রাখতে চায় আল- মামুন বাগমারায় এক গৃহবধূ নির্যাতনের শিকার

কর্তৃপক্ষের অবহেলার কারণে আজও অরক্ষিত আদমদীঘিতে শহীদ সুজিত রেলগেটটি

সংবাদদাতার নাম:
  • প্রকাশিত: বুধবার, সেপ্টেম্বর ৮, ২০২১
  • 29 দেখা হয়েছে:

মিরু,হাসান বাপ্পী

বগুড়া প্রতিনিধি:

বগুড়ার আদমদীঘিতে শহীদ সুজিত রেলগেটের একপাশে ওয়ার পুলি নষ্ট হওয়ায় ১৮দিন ধরে গেটটি অরক্ষিত অবস্থায় আছে। এতে করে টেনশনে দায়িত্ব পালন করতে হচ্ছে গেটকিপারদের। কারণ একটু অসতর্কতায় ঘটতে পারে প্রাণহানির মতো ঘটনা৷ তাই বড় ধরণের কোন দুর্ঘটনা ঘটার আগেই ঝুঁকিপূর্ণ এই রেলগেটটি মেরামত করা প্রযোজন বলে স্থানীয়রা দাবী জানিয়েছেন।

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, উপজেলার পূর্ব ঢাকা রোড নামক স্থানে সান্তাহার-বগুড়া সড়কে অবস্থিত শহীদ সুজিত রেলগেট। রেলপথ ও সড়ক পথের সংযোগস্থল হওয়ায় এখানে তোজাম্মেল, আসমাউল এবং শা-আলম গেটকিপার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছে। তিন শিফটে তারা ডিউটি করেন। প্রতিদিন এই রেললাইন দিয়ে দিন-রাত মিলে ৮টি ট্রেন চলাচল করে৷ আবার সড়ক পথে এই রেলগেট অতিক্রম করেই শতশত ছোটবড় যানবাহন চলাচল করে থাকে। রাত ১০ টার পর থেকে ঢাকাগামী বাসও এই রাস্তা দিয়ে চলাচল করে। যে কারনে ব্যস্ততম হয়ে পড়েছে এই সড়ক পথটি।

কিন্ত গত ২২ আগষ্ট রেলগেটের এক পাশের ওয়ার পুলি নষ্ট হওয়ায় রেলক্রসিং গেটটি অরক্ষিত ভাবে আছে। যার কারনে গেটটি উঠানামা করাতে পারছেনা দায়িত্বে থাকা গেটকিপাররা। তাই দূঘটনা এড়াতে ট্রেন আসার সময় হলেই তারা গেটের দুপাশে চেইন (শিকল) দিয়ে বেঁধে দিচ্ছে। যাতে ট্রেন চলাচলের সময় এ গেট দিয়ে কোন পথচারী বা যানবাহন পার হতে করতে না পারে। এ বিষয়ে গেটকিপার উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে জানালে ১৭দিন অতিবাহিত হওয়ার পরেও তাঁরা এখনও কোন পদক্ষেপ নেইনি। অথচ ওই কাজ দু’এক দিনেই ঠিক করা সম্ভব বলে জানান স্থানীয়রা। তাই সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের গাফিলতির কারনে আজও অরক্ষিত অবস্থায় আছে গেটটি। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চলছে পথচারী ও যানবাহন।

সান্তাহারের সিএনজি চালক শরিফুল ইসলাম বলেন, প্রতিদিন এই রাস্তা দিয়ে যাত্রী নিয়ে যেতে হয়। রেলগেটটি অরক্ষিত থাকায় জীবনের ঝুঁকির আশঙ্কা হয়। তাই দ্রুত এই গেটটা ঠিক করার দাবী জানাই।

দায়িত্বে থাকা গেটকিপার তোজাম্মেল বলেন, এই গেটটা সাময়িক ভাবে নষ্ট হওয়ায় খুব সমস্যার মধ্যে পড়তে হচ্ছে। আমাদের কাজ করা খুব কঠিন হয়ে পড়েছে। টেনশনে থাকতে হচ্ছে। তাই ট্রেন আসতে লাগলেই যানবাহন ও পথচারীদের সর্তক করে দেওয়া হচ্ছে। কারন একটু অসাবধানতায় ঘটতে পারে মারাত্মক দূঘটনা। আমাদের সাধ্যমত চেষ্টা করছি যাতে কেউ দূর্ঘটনায় না পড়ে৷ তবে এই গেটটা ঠিক করে দেওয়ার জন্য আমি বগুড়া ইঞ্জিনিয়ারিং শাখায় বলে আসার পর সেখান থেকে দেখতে এসেছিল। কিন্তু আজ পর্যন্ত ঠিক হয়নি। এখনও নষ্ট অবস্থায় আছে।

এ ব্যাপারে বগুড়া রেলওেয়ের উপ-সহকারী প্রকৌশলী (পথ) আসলাম হোসেন বলেন, আমাদের লোক গিয়েছিল রেলগেটি দেখতে। ওয়ার পুলির সাথে আরও কিছু নষ্ট হয়েছে। গেটের কাজ চলছে। খুব দ্রুত কাজটি করা হবে বলে জানান তিনি।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরো সংবাদ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। © All rights reserved © 2020 ABCBanglaNews24
Theme By bogranewslive
themesba-lates1749691102